পাউবোর প্রকল্পে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ টিআইবির

জলবায়ু অর্থায়ন তহবিল থেকে পানি উন্নয়ন বোর্ড- পাউবোর অধীনে বাস্তবায়িত প্রকল্পে চরম অনিয়ম ও দুর্নীতি হয়েছে বলে জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

বুধবার সংস্থাটির একটি গবেষণা প্রতিবেদনের আলোকে টিআইবি এসব তথ্য জানায়।

রাজধানীর টিআইবি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে গবেষণা প্রতিবেদনের তথ্য তুলে ধরা হয়।

গবেষণা প্রতিবেদনটি উপস্থাপন করেন টিআইবির পাউবো প্রকল্প নিয়ে গবেষণা দলের সদস্য গোলাম মহিউদ্দিন।

পরে এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান।

প্রতিবেদনে বলা হয়, জলবায়ু পরিবর্তনের দিক থেকে সরকারের ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা চিহ্নিত রয়েছে। সেটি না মেনে প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আর এসব ক্ষেত্রে ক্ষমতাসীন দলের কেন্দ্রীয় নেতা, সাবেক মন্ত্রী ও সংসদ সদস্যরা প্রকল্প অনুমোদনের বিভিন্ন পর্যায়ে সুপারিশ করেন এবং এসব প্রকল্পের বিভিন্ন ক্ষেত্রে প্রভাব বিস্তার করেন।

দুর্নীতি-অনিয়মে জড়িত প্রকল্পগুলো হলো- অবকাঠামো নির্মাণ ও নদীতীর সংরক্ষণ ও পুনঃখনন (সময়কাল ২০১৩-১৪), বরাদ্দ ১২ কোটি ৩৮ লাখ টাকা; নদীতীর সংরক্ষণ (সময়কাল ২০১৩-১৫), বরাদ্দ ২ কোটি ৯৯ লাখ ৯৫ হাজার টাকা; ঘূর্ণিঝড় ও লবণাক্ততা সংক্রান্ত প্রকল্প : পোন্ডার মেররামত (সময়কাল ২০১১-১৫), বরাদ্দ ১১ কোটি ৪৬ লাখ ৪৫ হাজার টাকা; নদীতীর সংরক্ষণ ও বাঁধ পুনঃনির্মাণ (সময়কাল ২০১২-১৬), বরাদ্দ ১৮ কোটি ৮৮ লাখ ৩ হাজার টাকা; ঘূর্ণিঝড় ও বন্যা নিয়ন্ত্রণ : পোন্ডার নির্মাণ (সময়কাল ২০১৩-১৪), বরাদ্দ ৯৯৭ কোটি ৫৮ লাখ টাকা এবং বন্যা নিয়ন্ত্রক বাঁধ নির্মাণ (সময়কাল ২০১২-১৬), বরাদ্দ ১৮ কোটি ৬৩ লাখ ৫৫ হাজার টাকা।

টিআইবি পাউবোর ছয়টি প্রকল্প তাদের গবেষণার আওতায় নেয়। গবেষণায় দেখা গেছে বাংলাদেশ ক্লাইমেট চেঞ্জ ট্রাস্ট ফান্ড (বিসিসিটিএফ), মহাহিসাব নিরীক্ষকের কার্যালয়, বাস্তবায়ন পরীবীক্ষণ বিভাগ (আইএমইডি) এসব প্রকল্প শেষ হওয়ার পর মূল্যায়ন, নিরীক্ষা ও পরীবীক্ষণ করেনি।

এছাড়া স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও প্রশাসনের পক্ষ থেকে চারটি প্রকল্প পরীবীক্ষণের দাবি করা হয়েছে। কিন্তু সেসব বিষয়ে কোনো প্রতিবেদন পাওয়া যায়নি। প্রকল্প বাস্তবায়ন এলাকায় কাজ সম্পর্কে বোর্ডে তথ্য প্রকাশ করার কথা থাকলেও অধিকাংশ ক্ষেত্রে তাও হয়না

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।