বাংলাদেশ দূতাবাসের কন্স্যুলার সেবা

মালয়েশিয়ার জহুর বারু অগ্রণী রেমিটেন্স হাউজে ২য় দিনেও শত শত প্রবাসীদের ভীড় 

।। গোলাম রাব্বানী রাজা, মালয়েশিয়া থেকে ।।

দুই দিনব্যাপী জহুর বারু অগ্রণী রেমিটেন্স হাউসে চলছে কন্স্যুলার সেবা। সেবা নিতে ২য় দিনেও শত শত প্রবাসীরা ভীড় জমিয়েছেন।

রোববার সকাল সাড়ে ৯ টায় কন্স্যুলার সেবা পরিদর্শন করেছেন, হাই কমিশনার মুহ: শহীদুল ইসলাম।

পরিমর্শন কালে সেবা নিতে আসা প্রবাসীদের উদ্দেশ্যে হাই কমিশনার শহীদুল ইসলাম বলেন, আপনাদের সেবা দিতে দূতাবাসের সকল কর্মকর্তা প্রস্তুত রয়েছেন। যে কোনো সমস্যা আমাদের বলেন, আমরা সমাধানের চেষ্টা করব।

শহীদুল ইসলাম বলেন, কোনোভাবেই দালালদের কাছে যাবেন না। সিরিয়াল অনুযায়ী ডিজিটাল পাসপোর্ট তৈরি এবং নবায়ন থেকে শুরু করে সব রকম সেবা দানে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চলছে। হাইকমিশনের প্রতিটি কর্মকর্তা-কর্মচারী শ্রমিকবান্ধব।

হাই কমিশনার আরোও বলেন, দূতাবাসের অক্লান্ত প্রচেষ্টার ফলে ৩ লাখ ৮৪ হাজার ১০২ জন অবৈধ শ্রমিক বৈধতার আওতায় এসেছেন। মাই-ইজি, ভ’ক্তি-মেঘা ও ইমান এ তিনটি কোম্পানীর মাধ্যমে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বাংলাদেশি অবৈধ শ্রমিক বৈধ হওয়ার জন্য আবারও আহবান জানিয়েছেন হাই কমিশনার।

এ দিকে কন্স্যুলার সেবা নিতে আসা দীর্ঘ লাইনে দাড়িয়ে থাকা মো: রহিম উদ্দিন বলেন, সকাল সাড়ে ৮ টায় লাইনে দাড়িয়েছি নতুন পাসপোর্টের ফিঙ্গার দিতে।

রহিম উদ্দিন বলেন, কুয়ালালামপুর দূতাবাসে যেতে হলে আসা যাওয়ায় যেখানে আমার খরচ হত শুধু গাড়ি ভাড়া ৫০০ রিঙ্গিত এখন শুধু ১১৬ রিঙ্গিতে পাসপোর্ট করতে পারছি। প্রত্যেকটি প্রদেশে দূতাবাসের কন্স্যুলার সেবা অব্যাহত থাকায় খরচ কম লাগছে।

রি-ইস্যু পাসপোর্ট জমা দিতে আসা মো: আনিসুজ্জামান ও খালেদ আহমেদ এ প্রতিবেদককে জানান, কোন দালাল ছাড়াই দূতাবাসের কর্ম-কর্তারা ১১৬ রিঙ্গিতের বিনিময়ে নতুন পাসপোর্টের আবেদন করেছি। দূতাবাসের কন্স্যুলার সেবা অব্যাহত থাকলে কেউ দালালের সরনাপন্ন হবেনা বলে জানান তারা।

মিনিস্টার পলিটিক্যাল মো. রাইছ হাসান সারোয়ারের নেতৃত্বে কন্স্যুলার সেবায় আরোও রয়েছেন, দূতাবাসের পাসপোর্ট ও ভিসা শাখার প্রথম সচিব মো. মশিউর রহমান তালুকদার। এ ছাড়া আরও রয়েছেন, প্রশাসনিক কর্মকর্তা সোহরাব হোসেন, তারিক আহমেদ, মাহমুদুর রহমান, দূতাবাসের পাসপোর্ট শাখার অফিস সহকারী শুশান্ত সরকার, আরিফুল ইসলাম, সিকিউরিটি শামছুল ইসলাম।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।