তুরানের হ্যাটট্রিকে জয়ে ফিরল বার্সা

সময়টা ভালো যাচ্ছিল না বার্সার। এর আগে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে শেষ ৩ ম্যাচ জয়শূন্য ছিল বার্সেলোনা, শেষ ৫ ম্যাচের ৪টিতেই ড্র। অবশেষে জয়ের দেখা পেল মেসিরা। আর্দা তুরানের হ্যাটট্রিকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচে বরুসিয়া মনশেনগ্লাডবাখের বিপক্ষে ৪-০ গোলের বড় জয় পেয়েছে লুইস এনরিকের দল।

ছবিঃ সংগৃহিত
ছবিঃ সংগৃহিত

আগের ম্যাচেই শেষ ষোলো নিশ্চিত হয়ে যাওয়ায় ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে সুয়ারেজ, টের স্টেগান, পিকেসহ নিয়মিত একাদশের কয়েকজনকে বিশ্রাম দেন কোচ। আর ইনজুরির কারণে দলে ছিলেন না নেইমার।

তবে পাঁচবারের বর্ষসেরা ফুটবলার মেসি ম্যাচের শুরুতেই দলকে এগিয়ে দেন। ষষ্ঠদশ মিনিটে বাঁ-দিকের বাইলাইনের কাছ থেকে তুরানের কাটব্যাক ধরে কোনাকুনি শটে দূরের পোস্ট দিয়ে বল জালে জড়ান আর্জেন্টিনা অধিনায়ক। এবারের আসরে এটা তার দশম গোল। দুই মিনিট পর আন্দ্রেস ইনিয়েস্তার বাড়ানো বল প্রথম ছোঁয়ায় নিয়ন্ত্রণে নিয়ে জোরালো শট নিয়েছিলেন মেসি। বল এক জনের পায়ে লেগে কিছুটা দিক পাল্টে জালে ঢুকতে যাচ্ছিল, ক্ষিপ্রতার সঙ্গে ঝাঁপিয়ে কর্নারের বিনিময়ে দলকে সে যাত্রায় বাঁচান গোলরক্ষক। বিরতির একটু আগে মেসির আরেকটি প্রচেষ্টা কর্নারে শেষ হয়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে তিন মিনিটের ব্যবধানে তুরান দুবার বল জালে পাঠালে ম্যাচ বার্সেলোনার নিয়ন্ত্রণে চলে যায়। ৫০তম মিনিটে দেনিস সুয়ারেসের ক্রসে হেডে লক্ষ্যভেদের পর আলেইস ভিদালের বাড়ানো বলে নিচু শটে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন এই তুর্কি মিডফিল্ডার।
৬৭তম মিনিটে হ্যাটট্রিক পূরণ করেন তুরান। ডান দিক থেকে স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড পাকো আলকাসেরের নিচু করে বাড়ানো বল ফাঁকায় পেয়ে কোনাকুনি শট নেন তিনি। বল গোলরক্ষকের গায়ে লেগে ভিতরে ঢুকে যায়।

এ জয়ের ফলে গ্রুপ ‘সি’তে ৬ ম্যাচ শেষে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে তালিকার শীর্ষে বার্সেলোনা। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের এ তালিকায় সমান ম্যাচে ৯ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ম্যানচেস্টার সিটি। সমান ম্যাচ ব্যবধানে ৬ পয়েন্ট নিয়ে ৩ নম্বর অবস্থানে রয়েছে মনশেনগ্লাডবাখ।

নিউজ১৯৭১ডটকম/এবিএন

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।