প্রাথমিকের উপবৃত্তি অনিয়ম তদন্তের নির্দেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক:

৩ আগস্ট ২০১৬

প্রাথমিক স্তরে শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তির টাকা বিতরণে অনিয়মের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

তদন্ত করে দায়ী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে করণীয় নির্ধারণের নির্দেশ দিয়েছে
২০ জেলার ২৫ উপজেলায় প্রাক-প্রাথমিক ও প্রাথমিকের মাসিক উপবৃত্তির টাকা বিতরণের অনিয়ম সরেজমিন তদন্তে মন্ত্রণালয়ের ১১ কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দিয়ে ১০ কর্মদিবসের মধ্যে সুপারিশসহ প্রতিবেদন সচিবের কাছে জমা দিতে বলা হয়েছে।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপসচিব কে এম রুহুল আমীনকে মাদারীপুরের কালকিনি, ফরিদপুরের নগরকান্দা ও শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায় অনিয়ম তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

রংপুরের পীরগাছা ও বদরগঞ্জ, কুড়িগ্রামের রৌমারীতে উপসচিব নেছার আহমদ, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও সিদ্দিরগঞ্জ, গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার অনিয়ম তদন্ত করবেন উপ-সচিব গোপাল চন্দ্র দাশ।

উপসচিব তানভীর আহমেদকে তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সিরাজগঞ্জের বেলকুচি, উপসচিব সত্যকাম সেনকে কুমিল্লার মুরাদনগর ও নাঙ্গলকোট, ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া ও বাঞ্ছারামপুর উপজেলার দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সিনিয়র সহকারী সচিব রেবেকা সুলতানা জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ ও টাঙ্গাইলের নাগরপুর, সিনিয়র সহকারী প্রধান কাজী মোখলেছুর রহমান ময়মনসিংহের ভালুকা ও ত্রিশাল, নেত্রকোণার মদন উপজেলায় অনিয়ম তদন্ত করবেন।

সহকারী সচিব রেজাউল করিমকে মেহেরপুর সদর উপজেলার উপবৃত্তির টাকা বিতরণে অনিয়ম তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

সহকারী সচিব মিজানুর রহমানকে বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জ, হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তা জাকির হোসেনকে পটুয়াখালীর বাউফল, ঝালকাঠির কাঠালিয়া ও বরগুনার বেতাগী উপজেলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে।

পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মো. নাসির উদ্দিন খানকে সুনামগঞ্জের তাহিরপুর উপজেলায় অনিয়ম তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।