জোড়া গোলে খরা কাটালেন রোনালদো

অবশেষে গোল পেলেন ক্রিস্তিয়ানো রোনালদো। জুভেন্টাসে গোলক্ষুধা মেটালেন তিনি জোড়া গোল করে। তাতে সাসুওলোর বিপক্ষে ২-১ গোলে সিরি এ’র টানা চতুর্থ জয় পেল চ্যাম্পিয়নরা। ৪ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে তারা।

রোনালদোর কাছ থেকে গোল না পেলেও খুব একটা মাথা ব্যথা ছিল না জুভেন্টাসের। কিন্তু স্বস্তিতে ছিলেন না পর্তুগিজ উইঙ্গার। ৩ ম্যাচ ধরে অপেক্ষা করেছেন তিনি। তবে পাশে পেয়েছেন কোচ মাসিমিলিয়ানো অ্যালেগ্রিকে। জুভেন্টাস কোচ দৃঢ়কণ্ঠে বলেছিলেন, সাসুওলোর বিপক্ষে প্রথম গোল পাবেন রোনালদো। সত্যিই হলো তার ভবিষ্যদ্বাণী।

সাসুওলোর রক্ষণভাগ প্রথমার্ধ সুযোগই দেয়নি জুভেন্টাসকে। বরং প্রথম ৪৫ মিনিটে একমাত্র লক্ষ্যে শট নেওয়া দল ছিল তারা। শঙ্কা জেগেছিল রোনালদোকে নিয়ে সেই পুরানো ঘটনাই ঘটবে।

কিন্তু বহুল আকাঙ্ক্ষিত গোলের দেখা পেলেন পাঁচবারের ব্যালন ডি অর’জয়ী। ৫০ মিনিটে ক্যারিয়ারের অন্যতম সহজ গোলে জুভেন্টাসের হয়ে প্রথমবার উদযাপন করেন রোনালদো। কর্নার শট ফেরারি হেড করে বিপদমুক্ত করতে চেয়েছিলেন, কিন্তু বল পোস্টে লেগে একেবারে তার সামনে চলে আসে। কোনও বাধা ছাড়াই জালে বল পাঠিয়ে উল্লাসে মাতেন রোনালদো। ২৮তম প্রচেষ্টায় ইতালিয়ান লিগে প্রথম গোল করেন তিনি।

গত তিন ম্যাচের খরা কাটিয়ে রোনালদো দ্বিতীয় গোল করেন ৬৫ মিনিটে। এমরে কানের ক্রস থেকে বাঁ পায়ের শটে লক্ষ্যভেদ করেন তিনি।

গোলের দেখা পেলেও রোনালদোর জন্য আক্ষেপ হয়ে থাকবে হ্যাটট্রিক করতে না পারা। ৭৮ ও ৮২ মিনিটে সুবর্ণ দুটি সুযোগ নষ্ট করেন ‘সিআরসেভেন’।

ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে বাবাকার একটি গোল শোধ দেন জুভেন্টাসকে। চ্যাম্পিয়নরা ম্যাচ শেষ করেছে ১০ জন নিয়ে। ইনজুরি সময়ের তৃতীয় মিনিটে সাসুওলোর খেলোয়াড় ডি ফ্রান্সেস্কোকে থুতু দেওয়ায় লাল কার্ড দেখেন দগলাস কস্তা।

গোল ডটকম

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।