চট্টগ্রামে ইয়াবা কেনা-বেচার সময় গ্রেফতার ৫

টেকনাফ থেকে ইয়াবা এনে নগরীতে বিক্রির সময় ৬ হাজার ১০০ পিস ইয়াবাসহ তিনজনকে গ্রেফতার করেছে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর।

আজ বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর কর্ণফুলী সেতু সংলগ্ন বশিরুজ্জামান চত্বর থেকে একজনকে এবং অপর দুইজনকে কাজীর দেউড়ি মোড় থেকে গ্রেফতার করা হয়। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম মেট্রো অঞ্চলের উপ-পরিচালক মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অন্যদিকে বুধবার নগরীর আকবরশাহ থানাধীন মধ্যম জনারখিল সড়কের  একটি দোকানের সামনে থেকে দুই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে র‌্যাব।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতরের হাতে গ্রেফতার তিন ব্যক্তি টেকনাফ থেকে ইয়াবা এনে চট্টগ্রামে বিক্রি করতেন বলে তিনি জানান। গ্রেফতার তিনজন হলেন, মো. ফারুক (২০), ফরিদ আলম (২৫) ও আলী হোসেন (২৮)। তাদের মধ্যে ফারুক কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানার হোয়াইকং এলাকার নুরুল ইসলামের ছেলে। অপর দুইজনের মধ্যে আলী হোসেন একই এলাকার হাবিবুর রহমানের ছেলে, ফরিদ আলম টেকনাফের লেদা এলাকার জাফর আলমের ছেলে।

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদফতর চট্টগ্রাম মেট্রো অঞ্চলের উপ-পরিচালক শামীম আহমেদ বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার ভোরে নগরীর কর্ণফুলী সেতু সংলগ্ন বশিরুজ্জামান চত্বর থেকে ৪ হাজার পিস ইয়াবাসহ মো. ফারুককে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে কাজীর দেউড়ি মোড় থেকে আরও ২১০০ ইয়াবাসহ অপর দুজনকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

অন্যদিকে বুধবার (০৮ আগস্ট) নগরীর আকবরশাহ থানাধীন মধ্যম জনারখিল সড়কের আনোয়ার ফার্নিচার দোকানের সামনে থেকে ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয়ের সময় দুইজনকে আটক করেছে র‌্যাব। এসময় তাদের কাছ থেকে ১ হাজার ৪৭৫ পিস উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার করা ইয়াবা আনুমানিক মূল্য ৭ লাখ ৩৭ হাজার ৫০০ টাকা। র‌্যাবের সিনিয়র সহকারী পরিচালক মিমতানুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

গ্রেফতার নগরীর আকবর শাহ থানাধীন বিশ্ব কলোনীর বাসিন্দা আবুল কালামের ছেলে মো. কামাল (২০) এবং সিরাজগঞ্জ সদরের বাসিন্দা মো. দুলাল শেখের ছেলে মো. আজিজুল হাকিম ওরফে সুজন (১৮)।

মিমতানুর রহমান বলেন, ‘কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী জনারখিল সড়কের আনোয়ার ফার্নিচারের সামনের পাকা রাস্তায় ইয়াবা ক্রয় বিক্রয়ের জন্য অবস্থান করছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে ওই স্থানে অভিযান চালায় র‌্যাব। র‌্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে আসামিরা পালানোর চেষ্টা করলে র‌্যাব  সদস্যরা তাদের ধাওয়া দিয়ে আটক করে। পরে উপস্থিত সাক্ষীদের সম্মুখে আটককৃতদের দেহ তল্লাশি করে এক হাজার ৪৭৫ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়।

তিনি আরও বলেন,  গ্রেফতারকৃত আসামিদের ব্যাপক জিজ্ঞাসাবাদে জানা যায়, তারা দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন মাদক ব্যবসায়ীর সঙ্গে যোগসাজসে ইয়াবা ক্রয় বিক্রয় করে আসছে।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।