লাদেনের দেহরক্ষীকে তিউনিশিয়ার কাছে হস্তান্তর করেছে জার্মানি

আল কায়েদার সাবেক প্রধান ওসামা বিন লাদেনের তিউনিশীয় বংশোদ্ভূত দেহরক্ষী সামি আল-আদাউদিকে জার্মান সরকার তিউনিশিয়ার কাছে হস্তান্তর করেছে।

সামি আদাউদি ১৯৯৭ সালে তিউনিশিয়া থেকে জার্মানিতে গিয়ে স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। তিউনিশিয়া সরকারের পীড়াপিড়িতে তাকে আটক করে শুক্রবার দেশটির কাছে হস্তান্তর করেছে বার্লিন।

তবে সামি বরাবরই দাবি করে আসছেন,  দেশে ফিরিয়ে নিয়ে তিউনিশিয়ার সরকার তার ওপর নৃশংস নির্যাতন চালাবে।

১৯৯৯ থেকে ২০০০ সাল পর্যন্ত সামি জার্মানিতেও ছিলেন না। এ সময়ে তিনি আফগানিস্তানে গিয়ে আল কায়েদার কাছ থেকে সামরিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে বিন লাদেনের দেহরক্ষীর দায়িত্ব পালন করেন বলে তিউনিশিয়া অভিযোগ করেছে।

তবে জার্মানির বিচার বিভাগে আদাউদির বিরুদ্ধে তিউনিশিয়ার অভিযোগের পক্ষে যথেষ্ট প্রমাণ পায়নি বলে তাকে এতদিন গ্রেফতার করেনি।

হোয়াইট হাউসের দাবি অনুযায়ী, ২০১১ সালে পাকিস্তানের অ্যাবোটাবাদে হানা দিয়ে ওসামা বিন লাদেনকে হত্যা করে আমেরিকার একটি বিশেষ নিরাপত্তা বাহিনী।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।