সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে : খসরু

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ও সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দলের সমন্বয়কারী আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী অভিযোগ করেছেন, ‘সিলেটে আওয়ামী লীগ প্রার্থী একাধিকবার নির্বাচনি আচরণবিধি লঙ্ঘন করলেও নির্বাচন কমিশনের কোনও ধরনের হস্তক্ষেপ নেই। এমনকি সিলেট বিএনপি নেতারা নির্বাচন কমিশনে একাধিকবার অভিযোগ করলেও কমিশন দায়সারাভাবে কাজ করছে, যা খুবই নিন্দনীয়। বিএনপির প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরী নির্বাচনি আচরণবিধি মেনে চললেও আমাদের নেতাকর্মীদের সিলেট ছেড়ে চলে যাওয়ার জন্য বারবার হুমকি দিচ্ছে গোয়েন্দা বাহিনীসহ পুলিশ। পাশাপাশি ভয়ভীতিও দেখানো হচ্ছে।’

আজ সোমবার (৯ জুলাই) বিকালে আরিফুল হক চৌধুরীর কুমারপাড়ার বাসায় সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেন, ‘সরকার জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তাই এই পবিত্র নগরীতে প্রভাব খাটিয়ে ভোটের ফলাফল তাদের পক্ষে নিতে চায়। কিন্তু এই সিলেটের মানুষ সরকারের সেই প্রকল্পকে ভেঙে দিয়ে আগামী ৩০ জুলাই ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী আরিফুল হক চৌধুরীকে বিপুল ভোটে পুনরায় নির্বাচিত করবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘আরিফুল হক ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী। জোটের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী তাকে সিলেটে প্রার্থী করা হয়েছে। শুনেছি জোটের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে সিলেট মহানগর জামায়াতের আমির মেয়র পদে প্রার্থী হয়েছেন। আমি আশাবাদী আমাদের জোটের শরিক দল জামায়াতের নেতারা এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করবেন।’

সিলেটে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘এই প্রার্থীর বিষয়ে আমি কেন্দ্রীয় নেতাদের অবহিত করবো। দলের হাইকমান্ড এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।’

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।