অভিষেক টেস্ট খেলেই অবসরে এড জয়েস

দুই দেশের হয়ে টি-টোয়েন্টি খেলার একমাত্র নজির আছে এড জয়েসের। ইংল্যান্ড, আয়ারল্যান্ডের হয়ে খেলা এই ক্রিকেটার সম্প্রতি আইরিশদের টেস্ট ইতিহাসেরও সাক্ষী ছিলেন। আয়ারল্যান্ডের হয়ে অভিষেক টেস্ট খেলেছেন কয়েক দিন আগে। সেই টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান বিদায় বলে দিলেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে!

পাকিস্তানের বিপক্ষে একটি টেস্ট খেলে অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন আইরিশ ক্রিকেটার। ৭৮ ওয়ানডে ও ১৮ টি-টোয়েন্টি খেলা এই ব্যাটসম্যানের লক্ষ্য এবার কোচিং ক্যারিয়ার। আইরিশদের ভবিষ্যৎ স্বপ্ন বায়স্তবায়নের অন্যতম সারথী এখন এড জয়েস। তাকে ব্যাটিং কোচের দায়িত্ব দিয়ে দিয়েছে ক্রিকেট আয়ারল্যান্ড।

অবসর প্রসঙ্গে এই ক্রিকেটার জানান, ‘আমার মনে হয় খেলা ছেড়ে দেওয়ার এটাই সঠিক সময়। একই সঙ্গে নতুন অধ্যায় শুরু করারও সঠিক মুহূর্ত। পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলা অভিষেক টেস্টের কয়টি দিন আমার কাছে ছিল অবিশ্বাস্য। একই সঙ্গে আমার পেশাদার ক্রিকেটেরও শেষ ম্যাচ ছিল।’

এড জয়েস ক্রিকেট খেলা ছাড়লেও আইরিশদের ভবিষ্যৎ নেতৃত্ব নির্মাণে কাজ করবেন। একই সঙ্গে ব্যাটিং কোচের দায়িত্বেও থাকবেন। ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে কিছু দিতে পারার আনন্দে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন তিনি, ‘কোচিংয়ে সুযোগ দেওয়ায় ক্রিকেট আয়ারল্যান্ডের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। জানি এখনও কোচিংয়ে অনেক শেখার বাকি। একই সঙ্গে এও জানি আমার মধ্যে যেই ভাণ্ডার রয়েছে তা আমি পরবর্তী প্রজন্মের কাছে দিয়ে যেতে পারবো।’

টি-টোয়েন্টিতে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে দুটি দেশকে প্রতিনিধিত্ব করেছেন এড জয়েস। খেলুড়ে জীবনে তার এমন বৈচিত্র্য কাজে দেবে আইরিশদের। একই সঙ্গে আইরিশদের হয়ে পঞ্চম সর্বাধিক রান সংগ্রাহক এই ক্রিকেটার। ৬১ ম্যাচে তার সংগ্রহ ২ হাজার ১৫১। ২০১৬ সালে বেলফাস্টে তার সর্বাধিক স্কোরটিও ছিল চোখ ধাঁধানো। ঝড়ো গতিতে করেছিলেন ১৬০ রান। আইরিশ এই ক্রিকেটারের আছে ইংল্যান্ডের হয়ে খেলার অভিজ্ঞতা। ২০০৬-০৭ মৌসুমে ১৭টি ওয়ানডে খেলেছেন ইংলিশদের হয়ে। এরপরেই নাম লেখান আয়ারল্যান্ডে।

ক্রিকবাজ

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।