গাজা উপত্যকায় ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি বহরে বোমা হামলা

ফিলিস্তিনের গাজা উপত্যকায় দেশটির প্রধানমন্ত্রী রামি হামাদাল্লাহ প্রবেশের সঙ্গে সঙ্গে তার বহর লক্ষ্য করে বোমা হামলা চালানো হয়েছে। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল-জাজিরার এক প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা যায়। দূষিত পানি ব্যবস্থাপনার প্ল্যান্ট উদ্বোধনের জন্য যাচ্ছিলেন ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রী। তবে তিনি অক্ষত আছেন বলে জানিয়েছে আল-জাজিরা।

প্রতিবেদনে বলা হয়, হামাদাল্লাহর গাড়ি বহর চলে যাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে বেত হানুন চেকপয়েন্টে ওই হামলা চালানো হয়। এতে কয়েকজন হালকা আহত হয়েছেন। ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের দল ফাতাহ এই বোমা হামলার জন্য হামাসকে দায়ী করেছেন। দলটির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য হুসেন আল শেখ বলেন, এই অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডের জন্য হামাস দায়ী। এই অঞ্চলের উন্নতির সিদ্ধান্ত ও নীতিনির্ধারণের জন্য এটি ভয়ঙ্কর প্রভাব ফেলবে।

এক দশকের বেশি সময় ধরে ইসরায়েল ও মিসরের অবরোধের মুখে পড়ে পৃথিবীর সবচেয়ে বড় উন্মুক্ত কারাগারে পরিণত হয়েছে ফিলিস্তিনের গাজা। তার ওপর ফিলিস্তিনের ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দল ফাতাহ ও জাতিমুক্তি আন্দোলনের সংগঠন হামাসের দ্বন্দ্বের কারণে অবস্থা ভয়াবহ রূপ নিয়েছে।

২০০৭ সালে গাজা উপত্যকার নির্বাচনে জয়লাভের পর তারা সেখান থেকে ফাতাহর নিয়ন্ত্রণ কেড়ে নেয়। সে সময় থেকেই হামাস ও ফাতাহর মধ্যে টানাপোড়েন বৃদ্ধি পেতে থাকে। আর তখন থেকে গাজায় অবরোধ আরোপ করে রেখেছে ইসরায়েল ও মিসর। তারা গাজায় যেকোনও পণ্যসামগ্রী আমদানি-রফতানিতে কড়া নিয়ন্ত্রণ আরোপ করে। ইসারায়েল মনে করে, এতে হামাস চাপে থাকবে আর গাজাবাসীও নিষেধাজ্ঞা শিথিলের আশায় তাদের  ক্ষমতা থেকে উৎখাত করবে।

আল-জাজিরা

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।