আনোয়ার কবির

সাংবাদিকতার উপলব্ধি

প্রায় সকল পেশায় অবসর আছে। অবসরের পরে (অব) লেখে। কিন্তু সাংবাদিকতা, চিকিৎসক, ইঞ্জিনিয়ার এ ধরণের কিছু পেশায় কোন অবসর নেই। চাকুরি থাকুক আর না থাকুক পেশাটি যেহেতু একেবারে জনসম্পৃক্ত তাই এগুলো আমৃত্যু পেশা।

একবার সাংবাদিক হিসেবে কিঞ্চি অবস্থান তৈরি হলে যেখানেই বা যে পেশাটিই কর্মজীবন কাটুক না কেন, মানুষ তাকে সাংবাদিক হিসেবেই জানে। আর ঘুরে ফিরে সাংবাদিক মানুষটিকে তার সাংবাদিকতার কাছেই নানাভাবে ফিরতে হয়। আর এটি আমি আমার নিজের জীবন দিয়ে বুঝি।

সাংবাদিকতার একটি বিষয় সারাজীবন আমার কাছে কষ্টদায়ক মনে হয়েছে। পত্রিকা ও মিডিয়ার সাংবাদিকতার ক্ষেত্রে এলিট এবং নন এলিট বিষয় খুব প্রকট। হাতেগোণা সাংবাদিকরা এলিট শ্রেণি। অধিকাংশ সাংবাদিক দিনে আনা দিনে খাওয়া, (অনেক্ষেত্রে) সাংবাদিকতাকে ব্যবহার করে জীবন নির্বাহের জন্য উদয়ান্ত বা নানাবিধও পথে জীবিকা নির্বাহসহ অর্থ উপার্জন করে থাকেন।

সাংবাদিকদের আন্দোলনের অধিকাংশ দাবির সুফলভোগী এলিট শ্রেণির সাংবাদিকেরা। অথচও তারা কখনো এই আন্দোলনগুলোর সাথে সম্পৃক্ত থাকেন না। সাংবাদিকদের মধ্যে সকল সময়ে ওয়েজ বোর্ডের আন্দোলন চলমান। নতুন ওয়েজবোর্ডের দাবিতে মিছিল মিটিং অনুষ্ঠিত হয়। দুঃখজনক হলেও সত্য সেই মিছিল মিটিং বা আন্দোলনে যারা অংশগ্রহণ করেন তাদের অধিকাংশ ওয়েজ বোর্ড তো দূরে থাকুক ন্যূনতম হারে মাসিক বেতনও পান না। ওয়েজ বোর্ডের সুফলভোগি এলিট শ্রেণির সাংবাদিকেরা মালিকের ভয়ে, চাকুরি রক্ষাসহ নানাবিধও কারণে এই আন্দোলনগুলো থেকে দূরে থাকেন। অথচও তারা সুফল ভোগ করেন। আর এটি অনেকটা কাকস্য পরিহাস বেদনা!!! যেখানে অধিকাংশ সাংবাদিক পত্রিকা থেকে ওয়েজ বোর্ড দূরে থাকুক নির্ধারিত বেতন আদায় করতে পারেন না, সেখানে ওয়েজ বোর্ডের আন্দোলন অনেকটা নির্মম পরিহাস। অনেকটা এলিট শ্রেণির সাংবাদিকদের সুযোগ সুবিধার জন্য শ্রমিক শ্রেণির সাংবাদিকদের আন্দোলন!!! সামনে ডিইউজে-এর নির্বাচন।

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন বা ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন এলিট এবং নন এলিট সকল সাংবাদিকদের প্রাপ্য টাকা ও বেতন আদায়ের নিশ্চয়তার জন্য আন্দোলন করবে, এটি স্বাভাবিক হওয়া উচিত। এলিট শ্রেণির ওয়েজ বোর্ড থেকেও শ্রমিক শ্রেণির সাংবাদিকের পেটে ভাতের ব্যবস্থা অনেক বেশি জরুরি।

আশা করবো সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ বিষয়টি উপলব্ধি করে তাদের কর্মপন্থা নির্ধারণ করবেন।

আনোয়ার কবির : লেখক, সাংবাদিক।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।